আজকের ট্রেন্ডিং

সাম্প্রতিক শেষ হয়ে যাওয়া আইসিসি টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সেরা দল ঘোষণা; দল নেতা হিসেবে ঘোষিত হল বাবর আজম

আইসিসি মেনস টি২০ বিশ্বকাপ ২০২১ শেষ হওয়ার পর পরই টুর্নামেন্ট সেরা দল ঘোষণা করলো ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। যেখানে নেই কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার। টুর্নামেন্টের আয়োজক ভারতেরও কোনো খেলোয়াড় নেই। এবারের টুর্নামেন্ট সেরা একাদশে চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া থেকে সর্বোচ্চ তিনজন খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছে। আর দলের অধিনায়ক নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তানের বাবর আজম।

টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় ডেভিড ওয়ার্নার অবধারিতভাবে আছেন এই তালিকায়। সেরা একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে এবারের আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকার করা অ্যাডাম জাম্পা এবং পেস বোলিং ইউনিটের নেতৃত্ব দেওয়া জশ হ্যাজলউড।

বিশ্বকাপ সেরা একাদশে রানার-আপ নিউজিল্যান্ড থেকে জায়গা পেয়েছেন পুরো আসরজুড়ে দারুণ বোলিং করে ১৩ উইকেট নেওয়া ট্রেন্ট বোল্ট। ওদিকে আসরে ধারাবাহিকতা দেখানো পাকিস্তান দল থেকেও জায়গা মিলেছে কেবল বাবর আজমের।

বিশ্বকাপের সেরা দলে শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যথাক্রমে দুইজন করে খেলোয়াড় জায়গা করে নিয়েছেন। প্রথম পর্ব খেলে সুপার টুয়েলভে ওঠা শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা ১৬ উইকেট নিয়ে আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। স্বাভাবিকভাবেই তিনি আছেন একাদশে। আরেক লঙ্কান ক্রিকেটার হিসেবে এই তালিকায় আছেন ব্যাট হাতে ধারাবাহিক পারফর্ম করা চরিথ আসালাঙ্কা।

সেমিফাইনালিষ্ট ইংল্যান্ড দল থেকে সুযোগ পেয়েছে ওপেনার জস বাটলার এবং অলরাউন্ডার মঈন আলী। দক্ষিণ আফ্রিকার এইডেন মার্করাম এবং পেসার আনরিখ নর্কিয়াও রয়েছে এই লাইন-আপে। দ্বাদশ খেলোয়াড় হিসেবে এই দলে আছেন পাকিস্তানি পেসার শাহিন আফ্রিদি।

পাকিস্তানের হয়ে ওপেনার হিসেবে খেললেও বাবর বিশ্বকাপ সেরা একাদশে জায়গা পেয়েছেন তিনে। ওপেনিং দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের ওয়ার্নার এবং বাটলার। মিডল অর্ডারে আছেন আসালাঙ্কা এবং মার্করাম। সেরা একাদশে দুই অলরাউন্ডার মঈন এবং হাসারাঙ্গা। স্পিনার হিসেবে আছেন জাম্পা। আর এই আসরের সেরা একাদশে তিন পেসার হিসেবে আছেন হ্যাজলউড, বোল্ট এবং নর্কিয়া। 

বিশ্বকাপ সেরা একাদশ

ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া) – ২৮৯ রান, গড় ৪৮.১৬

জস বাটলার (উইকেট রক্ষক) (ইংল্যান্ড) – ২৬৯ রান, গড় ৮৯.৬৬

বাবর আজম (অধিনায়ক) (পাকিস্তান) – ৩০৩ রান, গড় ৬০.৬০

চরিথ আসালাঙ্কা (শ্রীলঙ্কা) – ২৩১ রান, গড় ৪৬.২০

এইডেন মার্করাম (দক্ষিণ আফ্রিকা) – ১৬২ রান, গড় ৫৪.০০

মঈন আলী (ইংল্যান্ড) – ৯২ রান এবং ৭ উইকেট, গড় ১১.০০

ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা (শ্রীলঙ্কা) – ১১৯ রান এবং ১৬ উইকেট, গড় ৯.৭৫

অ্যাডাম জাম্পা (অস্ট্রেলিয়া) – ১৩ উইকেট, ১২.০৭ গড়

আনরিখ নর্কিয়া (দক্ষিণ আফ্রিকা) – ৯ উইকেট, গড় ১১.৫৫

জশ হ্যাজলউড (অস্ট্রেলিয়া) – ১১ উইকেট, গড় ১৫.৯০

ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড) – ১৩ উইকেট, গড় ১৩.৩০

দ্বাদশ খেলোয়াড়: শাহিন শাহ আফ্রিদি (পাকিস্তান) – ৭ উইকেট, গড় ২৪.১৪

আরও উত্তেজনাপূর্ণ ক্রিকেট আপডেটের জন্য, Baji তে চোখ রাখুন!

আরো আজকের ট্রেন্ডিং