আজকের ট্রেন্ডিং

নিজের সবচেয়ে পছন্দের খেলা থেকে অবসর নিলেন “স্টেইন-গান”

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে বিদায়ের ঘোষণা দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফাস্ট বোলার ডেল স্টেইন। ২০১৯ সালেই টেস্ট থেকে বিদায় নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে বেশি টেস্ট উইকেটের মালিক স্টেইন। এরপর সীমিত ওভারের ক্রিকেটের দিকে নজর দিতে চেয়েছিলেন। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৯ সালের মার্চে, এবং সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে খেলেছেন।

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২০ এর পর ক্যারিয়ারের ভবিষ্যত নিয়ে ভাববেন, এমনটা জানিয়েছিলেন স্টেইন। তবে কোভিড-19 মহামারীর এর কারণে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ স্থগিত হয়ে যায়। এ বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) ভারতের আয়োজনে বসতে যাচ্ছে সেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। কিন্তু তার আগেই ৩৮ বছর বয়সী স্টেইন ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন।  

২০২১ সালে আইপিএল থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেও পিএসএল ২০২১ এ খেলেছিলেন স্টেইন। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটি তিনি ঐ টুর্নামেন্টে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে মুলতান সুলতানসের বিপক্ষে খেলেছিলেন।

রক ব্যান্ড কাউন্টিং ক্রোস-এর এ লং ডিসেম্বর গানের লাইন উদ্ধ্বৃত করে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন স্টেইন। লিখেছেন, ‘অনুশীলন, ম্যাচ, ভ্রমণ, জয়, পরাজয়, পায়ে টেপ পেঁচানো, জেট ল্যাগ, আনন্দ, ভাতৃত্বের ২০ বছর। অনেক অনেক স্মৃতি। ধন্যবাদ দেওয়ার মতো অনেক বেশি মানুষ। আমি তাই আমার ব্যক্তিগত বিশেষজ্ঞ কাউন্টিং ক্রোসের ওপরে সব বলার ভার তুলে দিলাম।’

এরপর লিখেছেন, ‘সবচেয়ে ভালোবাসি যে খেলাটা, সেটা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে আজ অবসর নিলাম। অম্লমধুর অভিজ্ঞতা, তবে কৃতজ্ঞ আমি।’ পরিবার, সমর্থক, সাংবাদিক, সতীর্থ টুইটারে—সবাইকে অসাধারণ এ ভ্রমণে সঙ্গী হওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। 

২০০৪ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল স্টেইনের। এ সংস্করণে ২২.৯৫ গড়ে ৯৩ ম্যাচে ৪৯৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি। শন পোলকের পর দ্বিতীয় দক্ষিণ আফ্রিকার বোলার হিসেবে টেস্টে ৪০০ উইকেট পেয়েছিলেন স্টেইন, পরে পোলককে ছাড়িয়ে গেছেন। টেস্ট ইতিহাসে কমপক্ষে ৩০০ উইকেট নেওয়া বোলারের মাঝে সবচেয়ে ভালো স্ট্রাইক রেটও স্টেইনেরই (৪২.৩)।

গতির কারণে স্টেইনকে ডাকা হতো ‘স্টেইন-গান’ নামে। ফাস্ট বোলিংয়ের একটা প্রজন্মের অন্যতম আকর্ষণের নাম ছিলেন তিনি। ২০১০ সালের জানুয়ারিতে আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে বোলারদের শীর্ষস্থানে উঠেছিলেন। সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারে প্রায় সাত বছর টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর বোলার ছিলেন তিনি। 

তবে আরও সব ফাস্ট বোলারের মতোই চোট ভুগিয়েছে স্টেইনকে। ২০১৬ সালের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া সফরে কাঁধের চোট তো ছিল প্রায় ক্যারিয়ার শেষ করে দেওয়ার মতোই। এরপর এক বছরেরও বেশি সময় টেস্ট ম্যাচ খেলেননি তিনি।

যুগের অন্যতম সেরা এই পেসার ক্যারিয়ারে ১২৫টি ওয়ানডে খেলেছেন। যেখানে তাঁর উইকেট–সংখ্যা ১৯৬টি। পাশাপাশি ৪৭ টি-টোয়েন্টিতে নিয়েছেন ৬৪ উইকেট। প্রায় সবখানেই ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগ ও ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগেও নিয়মিত নাম ছিলেন স্টেইন।

ক্রিকেটের আরও সর্বশেষ খবর জানতে, চোখ রাখুন Baji -তে!

আরো আজকের ট্রেন্ডিং