ব্লগ

ক্রিকেট হাইলাইটস, ০৪ ডিসেম্বর: বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান (২য় টেস্ট – ১ম দিন), ভারত বনাম নিউজিল্যান্ড (২য় টেস্ট – ১ম দিন)

বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে ২য় টেস্টের ১ম দিনের খেলা এবং ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে ২য় টেস্টের ২য় দিনের ক্রিকেট অ্যাকশন গতকাল মাঠে গড়িয়েছে। দিনের খেলাগুলোর উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্তগুলো জানতে নিবন্ধনটি পড়া চালিয়ে যান।

বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান (দ্বিতীয় টেস্ট – ১ম দিন)

ঢাকার শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথমদিন দেখা গেছে প্রকৃতির বাধা। সারাদিনে খেলা সম্ভব হয়েছে মাত্র ৫৭ ওভার। যেখানে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রান করেছে পাকিস্তান।

ব্যাটিংয়ে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ৫৯ রানের জুটি গড়ে তোলেন পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলী ও আবদুল্লাহ শফিক। এরপর শফিক ২৫ রান করে তাইজুল ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলে উইকেটে আসেন আজহার আলী। কিছুক্ষণ পর তাইজুল আবিদ আলীকে (৩৯) সাজঘরে ফিরিয়ে তার দ্বিতীয় শিকার তুলে নেন।

এরপর তৃতীয় উইকেটে বাবর আজম ও আজহার মিলে ৯১ রানের জুটি গড়ে তোলেন। কিন্তু আকাশ কুয়াশা ও মেঘাচ্ছন্ন থাকায় আলোর স্বল্পতা দেখা যায়। যারফলে ২য় সেশনের পর দিনের খেলা ম্যাচ রেফারি শেষ করে দিতে বাধ্য হয়। প্রথম দিন শেষে বাবর (৬০) এবং আজহার (৩৬) রানে অপরাজিত আছেন।

স্কোরবোর্ড:
পাকিস্তান (১ম ইনিংস) – ১৬১/২ (৫৭.০)


ভারত বনাম নিউজিল্যান্ড (দ্বিতীয় টেস্ট – ২য় দিন)

প্রথম দিন শেষে চার উইকেট হারিয়ে ২২১ রান সংগ্রহ করা ভারতীয় ক্রিকেট দল, ক্রিজে থাকা মায়াঙ্ক আগরওয়াল (১২০) ও ঋদ্ধিমান সাহাকে (২৫) নিয়ে দ্বিতীয় দিন সকালে মাঠে নামে। যেখানে ১ম দিন ৪টি উইকেটই শিকার করেছিলেন ভারতীয় বংশভূত কিউই স্পিনার এজাজ প্যাটেল। কিন্তু দ্বিতীয় দিন তাঁর ঘূর্ণি জাদুতে ১০৪ রান সংগ্রহ করতে অল-আউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা। ২য় দিনের ছয় উইকেটও শিকার করেছেন এই কিউই বাঁহাতি স্পিনার।

ক্রিকেট ইতিহাসের মাত্র তৃতীয় বোলার হিসেবে এক ইনিংসে দশ উইকেট নিলেন এজাজ। ভারতের বিপক্ষে ওয়াংখেড়ে টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪৭.৫ ওভারে ১১৯ রান খরচ করে ১০টি উইকেট শিকার করেন তিনি।

দিনের দ্বিতীয় ওভারেই তাণ্ডব শুরু করেন এজাজ। পরপর দুই বলে সাজঘরে পাঠান ঋদ্ধিমান (২৭) ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে (০)। ইনিংসের তৃতীয় ব্যাটার হিসেবে শূন্য রানে আউট হন অশ্বিন। এজাজের ইতিহাসগড়া ইনিংসে ভারতকে নিরাপদ সংগ্রহে পৌঁছে দেওয়ার কৃতিত্বটা মায়াঙ্কের। ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরিতে তিনি করেছেন ১৫০ রান। এছাড়া ফিফটি হাঁকিয়ে ৫২ রানে আউট হন অক্ষর প্যাটেল।

এরপর একে একে জয়ন্ত যাদব (১২), উমেশ যাদব (৪) এবং মোহাম্মদ সিরাজকে (০) সাজঘরে ফিরিয়ে এক ইনিংসে দশ উইকেট শিকার করে অনন্য কীর্তি গড়েন এজাজ। যার ফলে ৩২৫ রানেই গুটিয়ে যায় বিরাট কোহলির দল।

কিছুক্ষণ পর নিজেদের ১ম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে মোহাম্মদ সিরাজ এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বোলিং তোপে মাত্র ২৮.১ ওভারেই ৬২ রানে অলআউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। সেই সাথে ভারতের বিপক্ষে সর্বনিম্ন দলীয় ইনিংসের রেকর্ড নিজেদের করে নিলো ব্ল্যাক ক্যাপসরা।

অধিনায়ক টম ল্যাথাম (১০) এবং কাইল জেমিসন (১৭) ব্যতীত আর কোন ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কের স্কোর স্পর্শ করতে পারেননি। অশ্বিন মাত্র ৮ রানে ৪টি এবং সিরাজ ১৯ রানে ৩টি উইকেট শিকার করেন। এছাড়া অক্ষর প্যাটেল ২টি এবং জয়ন্ত যাদব ১টি করে উইকেট তুলে নেন।

ভারত অবশ্য বড় ব্যবধানে এগিয়ে থাকলেও ফলোঅন করায়নি নিউজিল্যান্ডকে। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে কোন উইকেট না হারিয়ে ৬৯ রান সংগ্রহ করে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে ভারত। মায়াঙ্ক আগরওয়াল ৩৮ রান এবং চেতশ্বর পূজারা ২৯ রানে অপরাজিত থেকে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করবেন।

স্কোরবোর্ড:
ভারত (১ম ইনিংস) – ৩২৫/১০ (১০৯.৫)

নিউজিল্যান্ড (১ম ইনিংস) – ৬২/১০ (২৮.১)

ভারত (২য় ইনিংস) – ৬৯/০ (২১.০)

লাল বলের ক্রিকেটে তীব্র ক্রিকেট অ্যাকশন দেখা যাচ্ছে। এটির আপডেটের জন্য, Baji –র সাথেই থাকুন!

আরো ব্লগ