ব্লগ

ক্রিকেট হাইলাইটস, ০১ এবং ০২ সেপ্টেম্বর: সিপিএল ২০২১ (ম্যাচ ১১ এবং ১২), বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড (১ম টি20)

ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স ও গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের মধ্যে সিপিএল ২০২১ এর ১১ তম ম্যাচ, জ্যামাইকা তালাওয়াস ও সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টসের মধ্যে সিপিএল ২০২১ এর ১২ তম ম্যাচ এবং বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যেকার ৫ ম্যাচের সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি গতকাল এবং আজ সকালে মাঠে গড়িয়েছে। ম্যাচের উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনাগুলো সম্পর্কে জানতে নিবন্ধনটি পড়া চালিয়ে যান।

সিপিএল ২০২১ ম্যাচ ১১ (ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স বনাম গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স)

গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স সুপার ওভারে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে সিপিএলের ১১ তম ম্যাচে জয় পেয়েছে। সুপার ওভারে ওয়ারিয়র্সের দেয়া ৭ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে রোমারিও শেফার্ডের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৪ রানের বেশি করতে পারেনি নাইট রাইডার্স। ফলস্বরূপ টুর্নামেন্টে নিজেদের ২য় জয় তুলে নিয়েছে ওয়ারিয়র্স। 

টসে হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৮ তুলতে সমর্থ হয় নাইট রাইডার্স। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন কলিন মুনরো । এছাড়া শেষে ইসুরু উদানা ৯ বলে ২১ রান করে দলের এই স্কোর তুলতে সাহায্য করেন। ওয়ারিয়র্সের হয়ে সর্বোচ্চ ৩টি করে উইকেট শিকার করেন মোহাম্মদ হাফিজ ও শেফার্ড। 

১৩৯ রানের সহজ লক্ষে ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম থেকেই চাপে পড়ে যায় ওয়ারিয়র্স। নাইট রাইডার্সের বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৯ ওভারে মাত্র ৪০ রান তুলতে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে ওয়ারিয়র্স। শেষে নিকোলাস পুরান (২৭) ও শেফার্ড (১৮) চেষ্টা করলেও জয়ের বন্দরে আর পৌঁছাতে পারেনি তারা। ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৮ রানেই থেমে যায় ওয়ারিয়র্সের ইনিংস। এরপর সুপার ওভারে ম্যাচ গড়ালে সেখানে তাদের জয় নিশ্চিত করে ওয়ারিয়র্স।

স্কোরবোর্ড:
ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স – ১৩৮/৯ (২০.০)
গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স – ১৩৮/৯ (২০.০)
ফলাফল – ম্যাচ ড্র (গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স সুপার ওভারে জয়ী)
প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ – রোমারিও শেফার্ড


সিপিএল ২০২১ ম্যাচ ১২ (জ্যামাইকা তালাওয়াস বনাম সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস)

সিপিএল এর ১২তম ম্যাচে জ্যামাইকা তালাওয়াসের বিপক্ষে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস ৬ উইকেটের বড় জয়লাভ করেছে। টসে হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে তালাওয়াস নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৭ রানের ইনিংস খেলেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। এছাড়া চ্যাডউইক ওয়ালটন ২৬ ও রোভম্যান পাওয়েল ২৪ রান করেন। প্যাট্রিয়টসের হয়ে ডোয়াইন ব্রাভো সর্বাধিক উইকেট তুলে নেন (৩-২৫, ৪ ওভার)।ব

১৬৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৫২ রান তুলে ফেলে প্যাট্রিয়টস। এরপর এভিন লুইস (৩৯) ও রবি বোপারা (১৮) সাজঘরে ফিরে গেলেও দলকে লড়াইতে টিকিয়ে রাখেন শেরফেন রাদারফোর্ড ও ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। রাদারফোর্ড (২৬ বলে ৫০) এবং অ্যালেনের (১২ বলে ৩০ রান) বিধ্বংসী ইনিংসের সৌজন্যে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় প্যাট্রিয়টস।

এই ম্যাচে জয়ী হয়ে টানা চতুর্থ জয় নিয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে প্যাট্রিয়টস এবং পরাজিত হয়ে তালাওয়াস ২য় স্থানে রয়েছে।

স্কোরবোর্ড:
সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস – ১৬৬/৮ (২০.০)
জ্যামাইকা তালাওয়াস – ১৬৯/৪ (১৭.৪)
ফলাফল – সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস ৬ উইকেটে জয়ী
প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ – শেরফেন রাদারফোর্ড


বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড (১ম – টি২০) 

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে নতুন ইতিহাস গড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বুধবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে কিউইদের ৭ উইকেটে হারিয়েছে টাইগাররা। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে কিউইদের বিপক্ষে এটিই বাংলাদেশের প্রথম জয়।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশি বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে মাত্র ৬০ রানেই অল-আউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। হেনরি নিকোলস ও টম ল্যাথাম ১৮ রান করে করলেও অন্য কোনো কিউই ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কের দেখা পাননি। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বাধিক ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজুর রহমান ৩টি উইকেট শিকার করেন। এ ছাড়া সাইফউদ্দিন, নাসুম আহমেদ ও সাকিব আল হাসান ২টি করে উইকেট তুলে নেন। 

৬১ রানের সহজ লক্ষ তাড়া করতে নেমে ৩ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৫ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রানের ইনিংস খেলেন। এ ছাড়া মুশফিকুর রহিম ১৬ ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এর আগে টানা ১০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হেরেছিল বাংলাদেশ। ১১তম ম্যাচে এসে জয়ের দেখা পেল টাইগাররা।

স্কোরবোর্ড:
নিউজিল্যান্ড – ৬০/১০ (১৬.৫)
বাংলাদেশ – ৬২/৩ (১৫.০)
ফলাফল – বাংলাদেশ ৭ উইকেটে জয়ী
প্লেয়ার অফ দি ম্যাচ – সাকিব আল হাসান

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আকর্ষণীয় সকল টি-টোয়েন্টি লড়াই চলছে। এ সকল ম্যাচগুলোর নিয়মিত আপডেটের জন্য, Baji –র সাথেই থাকুন!  

আরো ব্লগ